একুশে ফেব্রুয়ারি

ভোরের জানালা খুলতেই যে মেয়েটির দিকে চোখ পড়লো
তার পরনে শিমুল শাড়ি।
চোখে চোখ পড়তেই লাজ লজ্জার মাথা খেয়ে ডাকলাম,
এই মেয়ে নাম কি ?
আমার চোখে চোখ রেখে সে বললো, একুশে ফেব্রুয়ারি।
বললাম ধুস ! সত্যি করে বল?
মেয়েটি তখন আমার চোখের দিকে তাকিয়ে আছে অপলক।
আমি অবাক হয়ে মেয়েটির চোখের মধ্যে দেখলাম একটা প্রকাণ্ড সমুদ্র!
তার বড়ো বড়ো ঢেউয়ের বুক ফুঁড়ে বেরিয়ে আসছে একটা জাহাজ!
আমি তার মাস্তুল দেখতে পাচ্ছি, আমি তার মুখ দেখতে পাচ্ছি,
আমি দেখতে পাচ্ছি তার গায়ে লেখা আগুন রঙের নাম,
- “আমার বাংলা ভাষা”
বললাম, সবাই তোমায় চেনে।
অম্লান হেসে সে তখন ঢাকার রাজপথ ধরে এগিয়ে যাচ্ছে
শহীদ সৌধের দিকে।
উন্মাদের মতো তার পেছন পেছন এগিয়ে যাচ্ছি আমি,
এগিয়ে যাচ্ছে একশো,দুশো,হাজার,লক্ষ লক্ষ রফিক জব্বর বরকত।
আমি স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছি,
আমার ও তাঁদের প্রত্যেকের হাতে গুচ্ছ গুচ্ছ রক্তমুখি গোলাপ ...।


0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About