আশঙ্কিত
                
গাছেদের দুনিয়ায় বড় হয়ে উঠেছি
সবুজ মখমলি ঘাস ছিল পুকুরের ধারে
ইঁটকাঠ পাথরের দুনিয়ার সাথে
মানিয়ে নিতে পারিনা আজও
বড় রুক্ষ লাগে বড় শুষ্ক লাগে।

উর্দিধারী সৈন্যের মত সারি সারি অ্যাপার্টমেন্ট
যেন ঊর্ধ্বতনের নির্দেশের অপেক্ষায়
দণ্ডায়মান কাঠিন্যের প্রতিমূর্তি,
কোমলতা সরসতা বজায় রেখে কি
সৈনিক হওয়া যায় কি? জানি না।

গাছগুলি এখানে আপন নিয়মে বাড়ে না
বাড়ে না ঘাস, কচুবন, জঙ্গল।
ঊর্ধ্বতনের অমোঘ নির্দেশনায়
তাদেরও বাড় বড়ই সীমিত।
কখনও যেন ফুলে না ওঠে মধ্যপ্রদেশ
সংযত বৃদ্ধি, সংকীর্ণ পরিসর।

এই সীমাবদ্ধ পরিবেশে কি করে
বাস করবে আকাশ মানব হৃদয়ে?
কাঠিন্যের বেড়া ভেঙে কি করে
স্থান করে নেবে সরসতা সজীবতা?
হিসেবী পরিবেশে বেড়ে ওঠা সন্তান
কি করে কবি হবে ভবিষ্যতে, বলতে পারো?


0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About