ব্রাত্যজন

ফিবছর শীতে
ক্যালেন্ডার কেটে কেটে
আঁঠায় জুড়ে আটকাই বেড়ার ফুটো
কতরকম ছবির সাথে তুমি কেমন একলা
ঠিক আমাদের মত

কোথাও কোথাও মূর্তি দেখেছি
কাকেরা বসে থাকে
বক্তৃতা মঞ্চে কেউ কেউ বলত
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর আমাদের গর্ব

একদিন পাড়ার গুলুদা
সেকি ডাকাবুকো গো
এক ধমকে প্যান্ট ভিজে পেচ্ছাবের গন্ধ...

বললেন আজ পঁচিশে বৈশাখ
আমাদের বড় নেতা রবিঠাকুরের পুজো
লাইনে দাঁড়াতেই হাতে এল একটা প্লাকার্ড
একী
ইনি তো  সেই আমার ভাঙাবেড়ার এদিক-ওদিক
ছড়িয়ে থাকা দাদু
নাইট উপাধি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন

আচ্ছা রবিদাদু স্বগ্গে যাবার সময়
লেখাজোখা সব বেঁধে নিতে হয়
বইপত্রগুলো দেখিনি তাই বলছিলাম
তোমার গানে গানেই মেলাই দুঃখ
চালের ফুটো দিয়ে তোমার কপালে চাঁদের আলো কী মোহময়
ছোঁয়াই হল না ...

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About