তোমাকেই মনে পড়ে

রবি ঠাকুর "পুষ্কর "দেখতে গিয়েছিলেন
পারেননি,পরিযায়ী পাখির মৃত্যুগল্প তাকে ফিরিয়ে এনেছিল
আজ যখন হাওয়া থরথর "পুষ্কর ",দেখতে গেলাম
মনে হলো সারা ভারতের গায়ে মৃত্যুগন্ধ
রূপোর নথ পরা এক শুস্ক তরুণী হেসে হেসে মরুজল তুলে দিলো হাতে
তাকিয়ে রইলাম, কি গান হবে কবিগুরু একে নিয়ে
"প্রাণ চায় চক্ষু না চায় "সুর কেটে কেটে যেন সমূহ নোনা অক্ষর,
বসে যাচ্ছে খিদের থালায়, ক্লান্ত কর্কটক্রান্তির সীমন্তে
দেবমন্ত্র বলি,
"সাবিত্রী বামপার্শস্থা দক্ষিণস্থা সরস্বতী
সর্বে চ ঋষয়োহ্যগ্রে কুর্যাদেভিশ্চ চিন্তনম "
মৃদু হাসুন দেবতা, পুজো দিতে আসিনি,
দেখে যাবো হ্রদের গভীরতা, গা থেকে না মুছুক কালো দাগ
 বর্ষা এসেছেরাজভূমির ধুলো ধুয়ে  নিচ্ছে পর্যটকের ফেলে যাওয়া সংসারী মন
সাবিত্রীপাহাড়ে যখন রাত নামে,
বধূদের দিয়ে যাওয়া পুজো, বানজারার গলায় গান হয়ে ফিরে যায়
এখানে ছমছমে অশ্বখুড়, মীরাভজন, আবির,
তারা কেউ গৃহীদের বিশ্বাস করে না ...

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About