গল্প থেকে ঈশ্বর

অনেক বার কাটাছেড়া করার পরও গল্পটা দাড়ালো না।
একটা আদীম রিপুর তাড়নায় ছুটে চলছি এঘর থেকে
ওঘর। বিন্দু বিন্দু ঘাম জমছে কপালে।
অথচ জানি, দুর্গা প্রতি রাতে কড়া নাড়ে আমার দরজায়।

আমার বাড়ির কাজের মেয়েটার নামও দুগ্গা।
একদিন ওকে ডেকে বললাম, তোর বাপের নাম কিরে ?
ও চুপ করে রইলো। ভাবলাম নিচু জাতের মেয়ে।
বললাম, তোর বিয়ে হয়েছে? ও মাথা নেড়ে বলল না।
যদিও মাথায় সিঁদুর, হাতে শাখা।

এখন গভীর রাত। নিশ্ছিদ্র অন্ধকারে নেমে আসছে
আকাশের তারা। দূরন্ত ঝড় নিয়ে আমি বসে আছি।
হঠাৎ কড়া নাড়ার শব্দে দরজা খুলে দিতেই দেখি
দাঁড়িয়ে আছে কাজের মেয়ে দুগ্গা। শতচ্ছিন্ন কাপড়ে
শরীরটা ঢেকে ও বলে উঠল, ‘বাবু, আমায় থাকতে দিবি?

একটা আদীম রিপুর টানে আমি আজ ঈশ্বরহয়ে গেছি।
এখন আমার দুই ছেলে। নাম রেখেছি অপুআর অমল
ওদের মায়ের নাম  দুগ্গানয়... দুর্গা।।

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About