তোমার মুখশ্রীর মতো

গাছের শেকড়ে রোজ জল দিতে হয়
একদিন বা দু'চারদিন বাদে দিলে অন্যরকম দেখায়
অভিমানী মেঘ ,অভিমানী মেয়ে
সব অভিমান জড় করে ঢলে পড়ছে
একমাত্র অবলম্বন একটুকরো রশি !

কতো কী ঘটে যায় বয়ে যায়
অন্তঃশীলা নদীর বুকে
পরস্পর দুঃখ-সুখের নিবিড় বাক্যালাপ
কখন মিলেমিশে সমুদ্রে যায় 
জলীয় ব্যাথাগুলো
নুড়ি হয়েই কি ফিরে আসে  ?

আমার ছিমছাম বাড়ির ঝুল বারান্দায়
শারদ পূর্ণিমার তীব্র জ্যোৎস্না
ঝলসে দেয় চক্ষু আমার 
বুকের মধ্যে তুলে রাখি একটুকরো সবুজ দূর্বাঘাস অপরাহ্ণে, গোধূলিতে
সন্ধ্যায়,ঘন রাত্রিতে
তোমার মুখশ্রীর মতোন !

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About